ঢাকা, ২৫ অক্টোবর রবিবার, ২০২০ || ১০ কার্তিক ১৪২৭

তারাকান্দা থানা প্রশাসনের বিচক্ষণতায় রক্ষা পেলো বিলুপ্ত প্রজাতির প্রাণী ২টি তক্ষক,আটক ৪ জন।

ক্যাটাগরি : জাতীয় প্রকাশিত: ৭৩৩ঘণ্টা পূর্বে   ১১৬৮


তারাকান্দা থানা প্রশাসনের বিচক্ষণতায় রক্ষা পেলো বিলুপ্ত প্রজাতির প্রাণী ২টি তক্ষক,আটক ৪ জন।

স্টাফ  রিপোর্টার : নীহার বকুল। 

ময়মনসিংহ জেলার  তারাকান্দা উপজেলায় ঢাকুয়া ইউনিয়ন হতে বিলুপ্ত প্রজাতির ২টি তক্ষকসহ চারজন বন্যপ্রাণী শিকারীকে আটক করেছে তারাকান্দা থানা পুলিশ প্রশাসন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে,তারাকান্দা থানার চৌকস  এসআই সায়েদুর রহমান এর নেতৃত্বে ২৩,সেপ্টেম্বর বুধবার দিবাগত রাতে ৯৯৯ কলের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ঢাকুয়া ইউনিয়নের ভালকী গ্রাম থেকে বন্যপ্রাণী শিকার ও সংরক্ষণ রাখার কারণে ২টি তক্ষকসহ ৪ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

আটককৃতরা হলেন, ভালকী গ্রামের মৃত হবিকুল ইসলাম এর ছেলে কামাল উদ্দিন (৪০), নেত্রকোনা ঘুহায়ল গ্রামের আব্দুল বারেকের ছেলে সাইদুল ইসলাম (৩৫), নেত্রকোনা কর্ণখোলা গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে সাত্তার মিয়া (৪৮) ও হেলাল মিয়া ।

এ বিষয়ে তারাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল খায়ের সোহেল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃতদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষন আইনে মামলা দিতে তারাকান্দা উপজেলা প্রশাসনের  ভ্রাম্যমান আদালতে  আটককৃতদের প্রেরণ করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিচারিক আদালতের কার্যক্রম চলছিল। 

উদ্ধারকৃত ২টি তক্ষককে জেলার সংশ্লিষ্ট বন কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তরিত করা হয়েছে বলেও তিনি জানান। এগুলো সংরক্ষিত বন এলাকায় অবমুক্ত করা হবে।    

এক সময়ে নেত্রকোনা ও ময়মনসিংহ জেলার গারো পাহাড়ের পাদদেশের বন জঙ্গলে অবাধে বিচরণ করা এসব প্রাণী বর্তমানে অবৈধ শিকারীর শিকার ও অর্থ লালসার কাছে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। একটি সঙ্গবদ্ধচক্র কোটি টাকা মূল্য পাওয়ার আশায় এসব নিরীহ প্রাণীকে শিকার করে থাকে। 

এলাকাবাসি ও পরিবেশবাদীদের সংগঠনসমূহ   বিলুপ্ত প্রজাতির প্রাণীগুলোকে উদ্ধার করে সেইসাথে শিকারিচক্রকে আটক করায় এসআই সায়েদুর রহমান সহ থানা পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। চোরাকারবারিদের সহ শিকারের সাথে জড়িতদের কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন ।                

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন: