ঢাকা, ২৫ অক্টোবর রবিবার, ২০২০ || ১০ কার্তিক ১৪২৭

পাকিস্তানের সাবেক রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠণঃ বিরোধীদলীয় নেতা গ্রেপ্তার

ক্যাটাগরি : আন্তর্জাতিক প্রকাশিত: ৬৩২ঘণ্টা পূর্বে   ৮২


পাকিস্তানের সাবেক রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠণঃ বিরোধীদলীয় নেতা গ্রেপ্তার

মোহাম্মদ হাসানঃ পাকিস্তানের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি আসিফ আলী জারদারিকে অর্থ পাচারের মামলায় অভিযুক্ত করে অভিযোগ গঠণ করা হয়েছে, তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠণ হওয়ায় তাঁর সমর্থকরা বলেছিলেন  এটা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরোধী রাজনীতিবিদদের দমন প্রবণতার অংশ। একইদিন অপর এক মামলায় বিরোধীদলীয় নেতা মিয়া মোহাম্মদ শেহবাজ শরিফকে গ্রেপ্তার করেছেন দেশটির ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (এনএবি)। শেহবাজ পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ভাই। 


জারদারি হলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর স্বামী। তিনি ২০০৮ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেছেন এবং বর্তমানে তিনি সংসদ সদস্য। এর আগেও তিনি আদালতের দন্ড ভোগ করেছিলেন। 


তাছাড়া ২০১৯ সালের জুন মাসে তাকে পৃথক অর্থ পাচারের মামলায় গ্রেপ্তার করেছিলেন পাকিস্তান দূর্নীতি  দমন বিভাগ।ডিসেম্বরে অসুস্থতা জনিত কারন দেখিয়ে আদালত হতে জামিনে মুক্তি পান।


এবার আরেক অর্থ পাচার মামলায় পাকিস্তানের অ্যাকাউন্টেবিলিটি কোর্ট সাবেক প্রেসিডেন্ট ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) কো-চেয়ারপারসন আসিফ আলী জারদারি ও তাঁর বোন ফারিয়াল তালপুরকে অভিযুক্ত করেছেন। 


২৮ সেপ্টেম্বর সোমবার ইসলামাবাদের আদালতে বিচারপতি আজম খানের নেতৃত্বে গঠিত একটি বেঞ্চে ওই মামলায় শুনানি করা হয়। এ সময় জারদারির সঙ্গে তাঁর কন্যা আসিফা ও বোন তালপুর উপস্থিত ছিলেন। পরে আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত আদালত মামলার পরবর্তী কার্যক্রম মুলতবি ঘোষণা করেন।


তবে তাঁদের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তাঁরা। নিউইয়র্ক টাইমস এমন সংবাদ ছেপেছে।


মামলার শুনানির পর পিপিপির চেয়ারম্যান বিলওয়াল ভুট্টো আদালতের ওই সিদ্ধান্তকে জারদারির বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক পদক্ষেপ হিসেবে আখ্যায়িত করে ক্ষোভ জানান।


মামলার শুনানির পর পিপিপির চেয়ারম্যান বিলওয়াল ভুট্টো আদালতের ওই সিদ্ধান্তকে জারদারির বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক পদক্ষেপ হিসেবে আখ্যায়িত করে ক্ষোভ জানান।


এদিকে একই দিন পাকিস্তানের পার্লামেন্টের বিরোধীদলীয় নেতা মিয়া মোহাম্মদ শেহবাজ শরিফকে গ্রেপ্তার করেছেন দেশটির ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (এনএবি)। অর্থ পাচার মামলায় লাহোর হাইকোর্ট জামিন নাকচ করে দেওয়ার পর আদালত প্রাঙ্গণ থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন: